menu

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে আইনের প্রয়োগ চাই

  • ঢাকা , শুক্রবার, ৩১ জুলাই ২০২০

ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে দেশে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আরও বিস্তৃত হতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন। কোরবানির পশু ও ঈদকেন্দ্রিক কেনাকাটায় স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে। ঈদযাত্রায় গণপরিবহনে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। এ অবস্থায় দেশে কোভিড-১৯ রোগের বিস্তার আরও বাড়ছে।

দেশে নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরুতে মানুষের মধ্যে যতটা সচেতনতা ও সতর্কতা দেখা গিয়েছিল এখন তা দেখা যাচ্ছে না। এমন নয় যে বাংলাদেশ কোভিড-১৯ রোগের সংক্রমণের চূড়া স্পর্শ করেছে। নিয়ন্ত্রিত বা সীমিত টেস্টের মধ্যেও কোভিড-১৯ রোগের বিস্তৃতি বাড়ছে। প্রতিদিনই সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে। অথচ সাধারণ মানুষ এ রোগ প্রতিরোধের প্রশ্নে উদাসীন হয়ে পড়েছেন। সংক্রমণের আগের অবস্থায় ফিরে গেছে দেশ। মানুষের এ উদাসীনতা-অবহেলা আগামীতে বড় ধরনের বিপর্যয় সৃষ্টি করতে পারে। কেউ যদি মনে করেন যে, তারা কোভিড-১৯ এর চূড়ান্ত রূপ দেখে ফেলেছেন তবে সেটা ভুল হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের দেশগুলোতে এখনও সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে। ব্রাজিল ও ভারত বিপর্যয়কর পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে সময় পার করছে। মৃত্যুর সংখ্যায় বাংলাদেশ প্রথম বিশটি দেশের তালিকায় প্রবেশ করেছে আরও আগেই। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, নভেল করোনাভাইরাসের মিউটেশন ঘটে দ্রুত। বাংলাদেশে যে এটি আগামীতে আরও ভয়ংকর রূপ নেবে না সেটা নিশ্চিত করে বলা যায় না।

নভেল করোনাভাইরাস নিয়ে সাধারণ মানুষের উদাসীনতা-অবহেলার জন্য সরকারের দায় কতটা সেই প্রশ্ন রয়েছে। বলা হচ্ছে, যার যার স্বাস্থ্যের সুরক্ষা তার তার হাতে। আমরা মনে করি, এটা দায় এড়ানোর প্রচারণা। সংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধের দায় কোন দায়িত্বশীল সরকার এড়াতে পারে না। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা বা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা বললেই দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে কিনা, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখছে কিনা সেটা সরকারকে নিশ্চিত করতে হবে। ঈদের মতো উৎসবে এটা নিশ্চিত করা আরও বেশি জরুরি। অথচ দোকানপাট, অফিস, কারখানা সব চলছে ফ্রি স্টাইলে। বাস ও লঞ্চে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই। এভাবে চললে নভেল করোনাভাইরাস থেকে দেশের মানুষের সহজে নিস্তার মিলবে না।

আমরা বলতে চাই, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রশ্নে সরকারকে কঠোর হতে হবে। প্রয়োজনে আইন প্রয়োগ করতে হবে। যারা স্বাস্থ্যবিধি মানবে না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করা জরুরি। কোভিড-১৯ প্রশ্নে মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধিতে সরকারি প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

  • পবিত্র ঈদুল আজহা

    আগামীকাল পবিত্র ঈদুল আজহা। মুসলিম বিশ্ব এবার এক পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ঈদুল আজহা