menu

যশোরে তরুণ লীগ নেতা খুন

যুব ও ছাত্রলীগের ১১ নেতাকর্মী আসামি

সংবাদ :
  • যশোর অফিস
  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৭ মে ২০১৮

যশোরে তরুণ লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম হত্যা মামলায় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ১১ নেতাকর্মীকে আসামি করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। গতকাল দুপুরে প্রেসক্লাব যশোর মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে করেছে যশোর সদর ও শহর যুবলীগ।

লিখিত বক্তব্যে শহর যুবলীগের আহ্বায়ক মাহামুদ হাসান মিলু অভিযোগ করেন, আওয়ামী লীগের নিবেদিত কর্মী মনিরুল হত্যাকা- নিয়ে একটি মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারে নেমেছে। প্রকৃত হত্যাকারীদের আড়াল করার জন্য যুবলীগ ও ছাত্রলীগের রাজপথের কর্মীদের আসামি করা হয়েছে। নিহতের পরিবারকে ব্যবহার করে একটি মহল ফায়দা লোটার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত অপরাধীদের শনাক্তের দাবি জানানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি সৈয়দ মুনির হোসেন টগর, সৈয়দ মেহেদী হাসান, দফতর সম্পাদক হাফিজুর রহমান, সদস্য শেখ জাহিদুর রহমান লাবু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লুৎফুল কবীর বিজু, সদর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক অশোক বোস, যুগ্ম আহ্বায়ক শহিদুজ্জামান প্রমুখ।

গত ১৩ মে রাতে শহরের পালবাড়ি এলাকায় কুপিয়ে ও বোমা মেরে শেখ মনিরুল ইসলামকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনা ১৫ মে নিহতের মা সুফিয়া বেগম বাদী হয়ে আদালতে ও পুলিশ বাদী হয়ে থানায় পৃথক মামলা করে। সুফিয়া বেগমের করা মামলায় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ১১ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। এতে জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুদ্দিন মিঠু, শহর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মেহেবুব রহমান ম্যানসেল, সদর যুবলীগের সদস্য সাইদুর রহমান ওরফে ডিম রিপন, যুবলীগ নেতা টিপন, হাসান, জসিম, সাইদুল, রাকিব হোসেন, মোমিনুর রহমান মমিন, হাফিজুর রহমান হাফিজ ও মোস্তফা ওরফে মোস্ত। আসামিরা সবাই স্থানীয় সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদের অনুসারী। নিহত মনিরুল ইসলাম জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারের অনুসারী ছিলেন।

একই ঘটনায় মঙ্গলবার কোতোয়ালি থানার এসআই সুকুমার কুন্ডু বাদী হয়ে অপরিচিত ৬/৭ জনকে আসামি করে থানায় আরেকটি মামলা করেছেন। আদালতে করা মামলার আদেশে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক নুসতার জাবীন নিম্মী এ হত্যাকান্ডের ব্যাপারে থানায় কোন এজাহার দাখিল হয়েছে কিনা সে সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন তিন কর্মদিবসের মধ্যে দাখিলের আদেশ দিয়েছেন থানার ওসিকে।