menu

জনউদ্যোগে শান্তিনগরে সড়ক প্রশস্ত করা হলো

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৭ মে ২০১৮

রাজধানীর দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের শান্তিনগর এলাকায় সরু রাস্তা প্রশস্ত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। শান্তিনগর এলাকায় বসবাসকারীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও সিটি করপোরেশন যৌথভাবে রাস্তা প্রশস্ত করার উদ্যোগ নেয়। এর অংশ হিসেবে রাজউক থেকে শান্তিনগর এলাকার অর্ধশত বাড়ির মালিককে নোটিশ দেয়া হয়েছে সীমানা প্রাচীর ভেঙে রাস্তার জন্য জায়গা ছেড়ে দেয়ার। ইতোমধ্যে শহীদ মিনার গলিতে স্কাইভিউ ভবনের (কবি গোলাম মোস্তফা ভিউ) পিছনের দেয়াল ভেঙে ২ ফুট জায়গা রাস্তা প্রশস্তের কাজ শুরু করা হয়েছে।

শান্তিনগর ঐতিহ্য রক্ষা ও উন্নয়ন সমিতির সভাপতি তাহসিন আহমেদ জানান, শান্তিনগর এলাকা নানা কারণে ঐতিহ্যবাহী। এখানে শিল্পচার্য জয়নুল আবেদিন, বিখ্যাত কবি গোলাম মোস্তফাসহ অনেক গুণী ব্যক্তিদের বসবাস ছিল। বর্তমানে শান্তিনগর এলাকার গাজী গোলাম মোস্তফা এবং শহীদ মিনার গলিতে প্রায় অর্ধশতাধিক বাড়ি রয়েছে। এ দুটি গলি অত্যন্ত সরু। রিকশা তো দূরের কথা ঠিকমতো গাড়িও চলাচল করতে গিয়ে সমস্যা হয়। এমন পরিস্থিতি যদি এখানে কোন বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে তাহলে এম্বুলেন্স বা ফায়ার সার্ভিসের গাড়িও প্রবেশ করতে পারবে না। এ কারণে এলাকাবাসী রাস্তা প্রশস্ত করার উদ্যোগ নিয়েছে। এলাকাবাসীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শান্তিনগর ঐতিহ্য রক্ষা ও উন্নয়ন কমিটির নেতারা এ বিষয়ে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ ও সিটি করপোরেশনের স্থানীয় কাউন্সিলের সহযোগিতায় রাস্তা প্রশস্তের কাজ শুরু করেছে। এলাকাবাসীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ৯ মে স্কাইভিউ টাওয়ারের দেয়াল ভেঙে ২ ফুট জায়গা নেয়া হয়। ওইদিন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোস্তবা জামান পপি, রাজউক চেয়ারম্যাসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। মূলত স্থানীয় এমপি ও মন্ত্রী রাশেদ খান মেননের নির্দেশে দেয়াল ভাঙা হয়। গতকাল বর্ধিত অংশ পাকাকরণের কাজ শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রত্যেক বাড়ির মালিককে নোটিশ দেয়া হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যে দুটি গলির সীমানা প্রাচীর ভেঙে রাস্তা প্রশস্তকরণের কাজ বাস্তবায়ন করা হবে।

ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোস্তবা জামান পপি জানান, রাস্তার জন্য বর্ধিত অংশ পাকা করে দেয়া হবে সিটি করপোরেশন থেকে। ইতোমধ্যে সিটি করপোরেশনের অর্থায়নে রাস্তা প্রশস্তকরণের কাজ শুরু হয়েছে। শহীদ মিনার গলি ও গাজী গোলাম মোস্তফা গলি প্রশস্ত হলে এলাকাবাসীর জন্য যেমন সুবিধা হবে তেমনি এ রাস্তা ব্যবহারকারীরাও ভোগান্তি থেকে রক্ষা পাবে। জনস্বার্থে এ ধরনের কাজ অব্যাহত থাকবে।