menu

পাবনার সাঁথিয়ায়

জঙ্গি পিতা-মামা আ’লীগের কাউন্সিলর!

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক,পাবনা
  • ঢাকা , রবিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০

আগামী ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় নেতারা তার নিজস্ব লোকজন নিয়ে ডেলিগেট সদস্য তৈরি করছেন। জামায়াত, বিএনপিসহ সদ্য আটককৃত জঙ্গির বাবা, মামাকে ডেলিগেট সদস্যভুক্ত করায় দলীয় কর্মীরা উপজেলা ও জেলা কমিটির কাছে প্রতিকার চেয়ে আবেদন করেছেন।

জানা যায়, পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদক গত নভেম্বর মাসে কো-অপসন কাউন্সিলার ও ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নামের তালিকা উপজেলা কমিটিতে জমা দেন। উদ্দেশ্য ইউপি নির্বাচনে এসব ডেলিগেটরা ভোট দিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচন করে কেন্দ্রে পাঠালে কেন্দ্র তাদের দলীয় মনোনয়নসহ প্রতীক বরাদ্দ দিবে। এছাড়া আগামী ইউনিয়ন কাউন্সিলর পদে সভাপতি ও সম্পাদক নিশ্চিত হওয়া যাবে এমন উদ্দেশ্যে এসব কাউন্সিলর করা হয়েছে।

উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর তালিকায় ১৯ জনের মধ্যে ১৮নং সদস্য মো. মোকলেছ বাবা মৃত হাফিজ উদ্দিন গ্রাম দাড়ামুদা। যিনি গত ২০ নভম্বের সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থেকে আটক জঙ্গী কিরণ হোসেন হামিম ওরফে শামীমের বাবা। একই দিনে আটক জঙ্গি নাইমুল ইসলামের আপন মামা শুকুর আলীর ছেলে আনিচ কাউন্সিলর তালিকায় ২নং সদস্য। কো-অপশন কাউন্সিলর তালিকায় ১৫নং সদস্য ইউনিয়নের উত্তর শোলাবাড়িয়া গ্রামের মৃত জনাব আলী খানের ছেলে জহুরুর ইসলাম নন্দনপুর ইউনিয়ন যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক। ইউপির ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ৯নং সদস্য নজরুল ইসলাম ও ১১নং সদস্য ইনামুল হক সহোদর ভাই। ছোন্দহ গ্রামের জয়েন উদ্দিনের ছেলে জামায়াত নেতা। ১৮নং সদস্য জামায়াত নেতা আবদুল আজিজ (ডাক্তার আজিজ)।

এছাড়া প্রত্যেক ওয়ার্ড থেকে যেসব সদস্যের তালিকা করা হয়েছে যার প্রায় অর্ধেকই অন্য দলের নিজস্ব আত্মীয়-স্বজন। ত্যাগী নেতারা বলেন, ওয়ার্ড কাউন্সিলর গঠন করতে দলীয় নেতকর্মীদের কোন মতামত গ্রহণ ছাড়াই ইউনিয়ন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নিজেদের মতো করে তালিকা করেছেন।

প্রতি ওয়ার্ড থেকেই উপজেলা কমিটির কাছে প্রতিকার চেয়ে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা চেয়েছেন।