menu

সুবর্ণচরে গণধর্ষণ

আরও এক আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, নোয়াখালী
  • ঢাকা , রবিবার, ১৩ জানুয়ারী ২০১৯

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে গণধর্ষণের ঘটনায় কুমিল্লার দাউদকান্দি থেকে গ্রেফতারকৃত অভিযুক্ত হেঞ্জু মাঝি আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে। গতকাল বিকেলে সে আদালতে স্বীকারোক্তিতে নির্যাতনের ঘটনায় তার জড়িত থাকার বর্ণনা দিয়েছে।

নোয়াখালী ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জাকির হোসেন জানান, কুমিল্লার দাউদকান্দি থেকে মামলার আসামি হেঞ্জু মাঝিকে গ্রেফতার করে গত শুক্রবার রাতভর করা হয় জিজ্ঞাসাবাদ, পরে সে স্বেচ্ছায় জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হয়। গতকাল দুপুরে তাকে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নিকট পাঠানো হয়। ম্যাজিস্ট্রেট আইন মোতাবেক তাকে ২ ঘণ্টা সময় দিয়ে বিকেল ৪টায় জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন। হেঞ্জু মাঝি স্বীকারোক্তিতে ৩০ ডিসেম্বর ভোট দেয়াকে কেন্দ্র করে ভোটকেন্দ্রে ও পরবর্তীতে গভীর রাতের বিভিষিকাময় কাহিনী স্বীকার করে। এরপর ম্যাজিস্ট্রেট তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়।

এদিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নির্যাতিতা এখনও ঘুমের ভেতর চিৎকার করে উঠেন এবং বলতে থাকেন আমাকে মেরো না, আমাকে মেরো না, আমার সন্তানরা কাকে মা ডাকবে। আমি আর ভোট দেব না এবং দিনের বেলায়ও নির্যাতিতা মাঝে মাঝে অন্যমনস্ক হয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ও চিকিৎসাক ডা. ফাতেমা জানান, এটা পোস্ট ট্রমচি স্টেচ ডিজ অর্ডার পি.টি.এস.ডির লক্ষণ। প্রাথমিক স্তরেই এ রোগের চিকিৎসা না হলে নির্যাতিতা মানসিক ডিপ্রেশান থেকে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলতে পারেন।