menu

মধ্যপ্রাচ্যে সেনা পাঠানোর খবরকে ‘ফেক নিউজ’ বললেন ট্রাম্প

সংবাদ :
  • সংবাদ ডেস্ক
  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০১৯
image

ডোনাল্ড ট্রাম্প

মধ্যপ্রাচ্যে এক লাখ ২০ হাজার সেনা পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়ে মার্কিন কর্মকর্তাদের বৈঠকের খবরকে ‘ফেক নিউজ’ আখ্যা দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত সোমবার সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, মার্কিন বাহিনীর ওপর ইরানের হুমকি মোকাবিলা ও তেহরানের পারমাণবিক অস্ত্র মোতায়েন কার্যক্রমে গতি আনা ঠেকাতে মধ্যপ্রাচ্যে সেনা পাঠানোর পরিকল্পনা পর্যালোচনা করেছেন মার্কিন কর্মকর্তারা। তবে গত মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এ খবর অস্বীকার করেছেন ট্রাম্প।

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউজে সাংবাদিকদের উদ্দেশে ট্রাম্প বলেন, ‘আমার মনে হয় এটা ফেক নিউজ, ঠিক আছে? আমার এখন তাই করতে হবে? নিশ্চয়ই না। আমরা এখনও এটা নিয়ে পরিকল্পনা করিনি। আশা করছি আমাদের এ পরিকল্পনা করতে হবে না।

আর যদি আমরা তা করি তাহলে তার চেয়েও বহু বেশি সেনা পাঠাব আমরা।’ সোমবার প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্পকে সেনা সদস্যের সংখ্যাসহ মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক শক্তি বৃদ্ধির পরিকল্পনার কথা জানানো হয়েছে কিনা তা জানা যায়নি। নিউইয়র্ক টাইমস বলেছে, মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের নির্দেশে ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্যাট্রিক শানাহানের উপস্থাপিত পরিকল্পনায় যে পরিমাণ সেনা পাঠানোর কথা বলা হয়েছে তাতে বৈঠকে উপস্থিত অনেকেই চমকে যান। বৈঠকে বলা হয় ২০০৩ সালে ইরাক আগ্রাসনের সময় প্রায় একই পরিমাণ সেনা পাঠানো হয়েছিল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার আগে আগে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদক জিম অ্যাকোস্টাকে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলে বসেন, ‘আপনি ফেক নিউজ!’ এরপর থেকেই ‘ফেক নিউজ’ প্রত্যয়টি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। শুরু হয় তার বিপুল ব্যবহার। তবে ‘ফেক নিউজ’ শব্দটি ব্যবহার না করতে বিশ্বের গণমাধ্যমকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে আসছেন জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যম ব্যবস্থাপকেরা। গত বছর বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস উপলক্ষে ঘানার রাজধানী আক্রায় এক আলোচনায় জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যম ব্যবস্থাপক ড. আলহাজি সাদিক আবুবাবকার সংবাদ শাস্ত্রের ধ্রুপদী ধারণাকে আশ্রয় করে যুক্তি দেন, কোনও তথ্য ভুয়া হলে তাকে আর সংবাদ নামে ডাকার সুযোগ থাকে না। তাই ফেক নিউজ বলে কিছু থাকতে পারে না। যাকে ফেক নিউজ নামে ডাকা হচ্ছে, তাকে বিপজ্জনক আখ্যা দিয়ে এর বিরুদ্ধে সম্মিলিত প্রতিরোধের আহ্বান জানান তিনি। মঙ্গলবার নিউইয়র্ক টাইমসের সেনা পাঠানো খবরকে ফেক নিউজ আখ্যা দেন ট্রাম্প। আরেক মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএন প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের বরাতে ওই বৈঠকে মধ্যপ্রাচ্যে অতিরিক্ত সেনা পাঠানোর পরিকল্পনার খবর নিশ্চিত করে। তবে সুনির্দিষ্ট সেনা সংখ্যা সিএনএনকে নিশ্চিত করেননি ওই কর্মকর্তা।