menu

তফসিলকে স্বাগত জানিয়েছে জাপা

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • ঢাকা , শুক্রবার, ০৯ নভেম্বর ২০১৮

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিলকে স্বাগত জানিয়েছে জাতীয় পার্টি। গতকাল তফসিল ঘোষণার পর গুলশানে নিজ বাসভবনে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার।

তিনি বলেন, আমরা প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সিইসির কাছে কিছু সুপারিশ করেছিলাম, তা আমলে নিয়েছেন। সেনাবাহিনী চেয়েছি, তারা আমলে নিয়েছেন। এজন্য দেশবাসীও খুশি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য সংখ্যাও আগের চেয়ে ৩ লাখ বাড়ানো হয়েছে। ফলে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব হবে। এই কমিশন অত্যন্ত সততা ও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে। আশা করি, ঐক্যফ্রন্টসহ সবাই নির্বাচনে আসবে। কারণ ক্ষমতায় যেতে হলে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে হবে। জনগণের ব্যালটে আস্থা রাখুন, জনগণ যাকে চাইবে, তারাই নির্বাচিত হবে। সুতরাং, নির্বাচনে কারচুপি হবে এমন সংশয়ের কোনো অবকাশ নেই।

মহাসচিব বলেন, সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হবে, এটা খুবই ভালো দিক। জনগণ উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে পারবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য সংখ্যাও আগের চেয়ে ৩ লাখ বাড়ানো হয়েছে। ফলে ৭ লাখ আইনশৃংখলা বাহিনীর অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব হবে।

রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, আমাদের ইভিএম সীমিত পরিসরে ব্যবহারের দাবি ছিল, সেটা নির্বাচন কমিশন গ্রহণ করেছে। সেজন্য তাদের সাধুবাদ জানাই। জাতীয় জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দিনে আমরা আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া জানাই।

তিনি বলেন, নির্বাচন জাতীয় জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। নির্বাচন কমিশনের প্রতি আমাদের পূর্ণ আস্থা আছে।

এক প্রশ্নের জবাবে মহাসচিব বলেন, নির্বাচনকালীন সময়ে কে মন্ত্রিসভায় থাকবেন, সেটা প্রধানমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নেবেন। এটা সাংবিধানিক ব্যাপার। সংবিধানের ভেতরেই সবকিছু করবেন প্রধানমন্ত্রী। সংবিধানের বাইরে গিয়ে মন্ত্রিসভা পুনর্গঠনের সুযোগ নেই।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, এরশাদের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী প্রমুখ।