menu

একাদশ সংসদ নির্বাচন

কাউন্ট-ডাউন

আর ২৪ দিন

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮
image

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর ২৪ দিন বাকি। ইতোমধ্যে মনোনয়নপত্র বাছাই শেষে বৈধ প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। যাদের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে ইতোমধ্যে তারা নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেছেন। আজ থেকে আপিলের শুনানি শুরু, চলবে ৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত। আগামী ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। ১০ ডিসেম্বর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়ার পর শুরু হবে প্রতীকসহ প্রচারণা। ভোট হবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর, রোববার।

মনোনয়নপত্র বাছাই শেষে আওয়ামী লীগের ২৭৮জন, বিএনপির ৫৫৫ জন প্রার্থীসহ বিভিন্ন দল, জোট এবং স্বতন্ত্র মোট ২২৭৯ জন প্রার্থী ভোটে লড়তে বৈধতা পেয়েছেন। আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ (জাপা) নির্বাচন কমিশনে (ইসি) নিবন্ধিত ৩৯টি দল সবাই এবং নিবন্ধনহীন আরো অর্ধশত দল জোটগত বা স্বতন্ত্রভাবে এবারের নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন জোটের ৮টি নিবন্ধিত দল ‘নৌকা’ প্রতীক এবং বিএনপির জোটের ১১টি দল ‘ধানের শীষ’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার কথা জানিয়েছে। ফলে ভোটে নৌকা আর ধানের শীষের মধ্যেই মূল লড়াই হবে, যা সাধারণ মানুষ ইতোমধ্যে উপলব্ধি করতে পেরেছেন। জাতীয় পার্টি আওয়ামী লীগের জোটে এলেও নিজেদের প্রতীক লাঙল নিয়েই ভোট করবে। অন্যদিকে আটটি বাম দল জোটগত নির্বাচন করলেও নিজ নিজ দলের প্রতীক নিয়ে ভোট করবে।

নির্বাচনের তারিখ ঘোষণার পর পরই সারাদেশে আনন্দঘন পরিবেশে বিভিন্ন দল ও জোটের মনোনয়ন প্রক্রিয়া শুরু করে। রাজনীতিক, কর্মী ও সমর্থকদের প্রচারণায় রাজধানীতে উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়। শহর পেরিয়ে নগর-বন্দর এবং গ্রাম-গঞ্জের চায়ের দোকান, অলিগলি, পাড়া-মহল্লা, মাঠ-ঘাট সর্বত্রই এ উৎসব ছড়িয়ে পরে। কোন আসনে কে প্রার্থী হচ্ছেন, কোন ‘সেলিব্রেটি’ কোন দল থেকে নির্বাচন করছেন, এসব বিষয় নিয়ে সব শ্রেণী-পেশার মানুষ এখন আলোচনায় মুখর।

জনগণের প্রত্যাশা অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন। তারা ভোটের নামে সহিংসতা চায় না। তারা উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে চায়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ এবং সব দলের অংশগ্রহণমূলক হওয়ার যে আকাক্সক্ষা দীর্ঘদিন জনমনে লালিত হয়েছে, সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী ৩০ ডিসেম্বর তা বাস্তবায়নের সুযোগ পাবে ভোটাররা।