menu

৪ জেলায় বিনাভোটে বিজয়ী যারা

  • ঢাকা , শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০১৯

http://print.thesangbad.net/images/2019/March/14Mar19/news/upload.jpg

চরফ্যাশন

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যানসহ দুই ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। গত বুধবার বিকেলে উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদিন আখন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আকলিমা মিলা, পুরুষ ভাইস চেয়াম্যান পদে মো. ছাদেক মিয়া, বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

জানা যায়, চতুর্থধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জয়নাল আবেদীন আখন, জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী মনিরুজ্জামান, ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে মো.ছাদেক মিয়া, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও ভাইস চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান স্বপন, এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আকলিমা মিলা, হাসিনা বেগম, বিবি আমেনা, মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। গত বুধবার যাচাই-বাছাই দিন জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী এম মনিরুজ্জামান শহীদের মনোনয়নপত্রে প্রস্তাবকারীর স্বাক্ষর জাল করা এবং চাঁদাবাজি ও মানহানির একটি মামলায় ১৬ বছর সাজাসহ একাধিক মামলার তথ্য গোপন করায় তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটার্নিং অফিসার আলাউদ্দিন আল মামুন।

অপরদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। বুধবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিনে সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে ৩ ভাইস চোয়াম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম জানান, একজন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়ায় চেয়ারম্যান পদে জয়নাল আবেদিন আখন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও ৩ ভাইস চেয়াম্যান প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করায় ২ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে।

চাটখিল

নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ি উপজেলার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী খন্দকার রুহুল আমিন এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আ.ফ.ম বাবু ও গিয়াস মনির মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন। গত বুধবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে বিদ্রোহী প্রার্থী আ.ফ.ম বাবু ও গিয়াস মনির মনোনয়ন প্রত্যাহার করলে রিটার্নিং অফিসার খন্দকার রুহুল আমিনকে নির্বাচিত ঘোষণা করেন।

এছাড়া চাটখিল উপজেলার নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আলী তাহের ইভু, আওয়ামী লীগ নেতা শামছুল ইসলাম, মীর হেসেন ও জাতীয় পার্টির নেতা নুরুল আমিন ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন।

গত বুধবার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে আওয়ামী লীগ নেতা শামছুল ইসলাম, মীর হেসেন ও জাতীয় পার্টির নেতা নুরুল আমিন তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করলে রিটার্নিং অফিসার আলী তাহের ইভুকে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত ঘোষণা করেন। উল্লেখ্য চাটখিল উপজেলা নির্বাচনে চেয়াম্যান পদে ৬ জন মনোনয়ন দাখিল করেছিলেন। এদের মধ্যে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে ৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। বর্তমানে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির এবং জাতীয় পার্টির নেতা ফজলুল করিম বাচ্চু নির্বাচন করছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী রয়েছেন শামীমা আক্তার মেরী, রোজিনা আক্তার রোজি ও পান্না আক্তার।

পিরোজপুর

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন পিরোজপুরের ৭টি উপজেলায় ৩টি পদের বিপরীতে একজন করে প্রার্থী থাকায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন তারা। গত বুধবার ভা-ারিয়া উপজেলায় চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এবং নাজিরপুরে ভাইস চেয়ারম্যান পদে একজন করে প্রার্থী বাদে অন্যরা সবাই তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন। ফলে দুইটি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে এক জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে একজন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে একজন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হন।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতরা হলেন, ভা-ারিয়ায় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. মিরাজুল ইসলাম চেয়ারম্যান, জাতীয় পার্টি (জেপি) মনোনীত নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আসমা আক্তার এবং নাজিরপুরে ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগের মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন।

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন অফিসার শাহনুর খান বলেন, বুধবার ৭টি উপজেলা থেকে চেয়ারম্যান পদ থেকে চারজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে দুইজন এবং সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে তিনজন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেন।

আগামী ৩১ মার্চ অনুষ্ঠিত পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে পিরোজপুরের ৭টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ১৭ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৮ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৪ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

বাগেরহাট

আগামী ৩১ মার্চ বাগেরহাট জেলার সকল উপজেলায় অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে সব মিলিয়ে আসন্ন উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে বাগেরহাটের নয়টি উপজেলার ৬টিতেই চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা। এর মধ্যে পাঁচ উপজেলায় আগেই কোন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিল না। গত বুধবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত ছিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিন। জেলা নির্বাচন অফিস জানায়, এদিন বাগেরহাট সদর উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুইজন নারী প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করায় এ পদে নারী নেত্রী ও এনজিও কর্মী মোসা. রিজিয়া পারভিনের আর কোন প্রতিদ্বন্দ্বী নাই। প্রত্যাহারকারী দু’জন হলেন, চলতি মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট পারভিন খানম ও মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী রিনা সুলতানা। এছাড়া সদর উপজেলায় ৫ জন পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামী লীগ নেতা মো. মহিতুর রহমান পল্টন তার প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেয়ায় আগামী ৩১ মার্চ বাগেরহাট সদর উপজেলায় শুধু পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদ্বন্দ্বী ৪ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেন, চলতি সরদার মাসুদুর রহমানসহ নতুন মো. অমিরুল ইসলাম, সরদার আব্দুল কাদের ও শিক্ষক খান রেজাউল ইসলাম।

আর চিতলমারী উপজেলায় জাতীয় পার্টিও সম গোলাম সরোয়ার উপজেলা পরিষদেও চেয়ারম্যান পদে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করায় এখানে অশোক বড়াল আওয়ামী লীগের প্রার্থীর আর কোন প্রতিদ্বন্দ্বী নাই। আর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন বুধবার চিতলমারীর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন। ফলে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হচ্ছেন ৬ উপজেলার চেয়ারম্যান প্রার্থীরা।

তবে দুটি উপজেলাতে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এবং একটিতে ভাইস চেয়ারম্যান পদ ছাড়া অন্য সবকটিতে ভাইস ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিতদের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। আজ বৃহস্পতিবার প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে। আগামী ৩১ মার্চ বাগেরহাটের নয় উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও পাঁচ উপজেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. জহিরুল ইসলাম এবং জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও চার উপজেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা ফারাজী বেনজীর আহম্মেদ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।