menu

সেন্টমার্টিন থেকে দালাল রোহিঙ্গাসহ আটক ৩৯

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, টেকনাফ (কক্সবাজার)
  • ঢাকা , শুক্রবার, ০৯ নভেম্বর ২০১৮

সমুদ্রপথে ফের মানব পাচারের চেষ্টাকালে সেন্ট মার্টিন দ্বীপের বঙ্গোপসাগর থেকে ছয় দালাল ও রোহিঙ্গাসহ ৩৯ জনকে আটক করেছে কোস্ট গার্ড সদস্যরা। এতে রোহিঙ্গা নারী ও শিশু রয়েছে। এ সময় পাচারে ব্যবহারিত ট্রলারটিও জব্দ করা হয়েছে বলে জানায় কোস্ট গার্ড।

এদিকে গত দুইদিনে মালয়েশিয়া মানব পাচারের চেষ্টাকালে ছয় দালালসহ ৫৩ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুকে আটক করেছেন বাংলাদেশ কোস্টগার্ড ও বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

কোস্টগার্ড টেকনাফ স্টেশন কমান্ডার লে. ফয়েজুল ইসলাম ম-ল বলেন, গত বুধবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে টেকনাফের সেন্টমার্টিন দ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর থেকে একটি ট্রলার থেকে ছয় দালাল ও রোহিঙ্গাসহ ৩৯ জন নারী-শিশু ও পুরুষকে আটক করা হয়েছে। আটক দালালরা হলেন, মহেষখালী গোরঘাটা কুতুবজোন এলাকার মৃত মোজার মিয়ার ছেলে ট্রলার মালিকের ভাই আব্দু শুক্কুর ও মাঝি আব্দুল গফুর, একই এলাকার মৃত মো. হোসনের ছেলে রফিকুল ইসলাম, মো. শরিফের ছেলে মো. সৈকত, মো. আব্দুল হাকিম প্রঃ সোনামিয়ার ছেলে নাসির উদ্দীন, মৃত মো. দবিরুলের ছেলে মো. জুয়েল। এদের মধ্যে ৪ জন বাংলাদেশী নাগরিকও রয়েছে। এরা হলো, টাংগাইল জেলার কবীর উদ্দীন, মাজেদুর রহমান, পেকুয়া উপজেলার মো. কাশেম ও মানিক হোসেন। অন্যদের মধ্যে ১০ নারী, ১০ পুরুষ ও ৯ শিশু রোহিঙ্গা নাগরিক রয়েছে। এরা উখিয়া ও টেকনাফের বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা।

এছাড়া গত মঙ্গলবার ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটলিয়নের একটি টহলদল টেকনাফ সাবরাং শাহপরীর দ্বীপ ঘোলারচর সংলগ্ন উপকূল থেকে মালয়েশিয়াগামী ১৪ রোহিঙ্গা নারী, পুরুষকে উদ্ধার করেছেন। এদিকে হঠাৎ করে টেকনাফ উপকূল দিয়ে সাগর পথে মানব পাচারের চেষ্টা করা হচেছ। মালয়েশিয়া পাচারের নামে একটি প্রতারক চক্র বস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের প্রলোভনে ফেলে পাচারের ফাঁদে ফেলে টাকা হাটিয়ে নিয়েছেন।