menu

ভোলায় টাকা আত্মসাৎ পৌর নাজির গ্রেফতার

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, ভোলা
  • ঢাকা , বুধবার, ১৫ মে ২০১৯

ভোলায় ৪ দিন ধর্মঘটের নামে নাগরিকসেবা বন্ধ রেখে জনদুর্ভোগ সৃষ্টিকারী পৌরসভার আলোচিত ও দুর্নীতিবাজ নাজির মীর আলাউদ্দিনকে গত রোববার রাতে প্রতারণা মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত সোমবার তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। এর আগে করের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সাপপেন্ড হয়ে ছিলেন আলাউদ্দিন। দুর্নীতি, প্রতারণাসহ নানা অভিযোগ রয়েছে ওই আলোচিত মীরের বিরুদ্ধে। ওয়ান ইলেভেনের সময়ও তিনি গ্রেফতার হন। এমনটা জানিয়েছেন ভোলা থানার ওসি মো. ছগির হোসেন। ওসি জানান, শহরের বিএভিএস সড়কের ব্যবসায়ী জাকির হোসেন লিখিত অভিযোগ করেন, মীর আলাউদ্দিন তার কাছ থেকে ১২ লাখ টাকা নিয়ে তা পরিশোধ করতে তালবাহানা করতে থাকে। এমন কি টাকা পরিশোধে ব্যাংক চেক প্রদান করলেও তা ব্যাংকে চেক ডিজ-অনার (অগ্রহণযোগ্য) হয়। তার বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতিরও অভিযোগ রয়েছে। এদিকে গত ৫ দিন মীর আলাউদ্দিন ছিলেন শহরের আলোচিত। পৌর কাউন্সিলরদের সঙ্গে সচিবের কথাকাটাকাটি, পরিস্থিতির মুখে মীর অলাউদ্দিনের নেতৃত্বে স্টাফরা টানা ৪ দিন ধর্মঘট পালন করেন। তিনি পৌর শহরকে অচল করে রাখেন। এ সময় শহরে সড়কের বিদ্যুৎ বাতি বন্ধ করে দেন। কাঁচা বাজার, মাছ বাজার, চরবাজারসহ সকল সড়কের ময়লা আবর্জনা অপসারণ করা বন্ধ রাখান। নাগরিকসেবা বন্ধ রাখায় জনজীবনে দুর্ভোগ নেমে আসে। এমন পরিস্থিতিতে পৌর কাউন্সিলরগণ সংবাদ করে প্রতিবাদ জানান। শেষ পর্যন্ত স্টাফরা ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন। অপরদিকে স্টাফ ও কাউন্সিলর দ্বন্দ্ব নিরসনে পৌর সভা সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতিসহ নেতারা ভোলায় এসে সমঝোতা বৈঠক করেন। ধর্মঘট প্রত্যাহার করে নেন। সব মিলিয়ে ভোলা পৌরসভার প্রশাসনিক চেইন অব কমান্ড ভেঙে পড়েছে বলে মনে করেন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা। ফলে উন্নয়ন কাজ, নাগরিকসেবা সবটাই থমকে যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতির উত্তরণ চান জেলা নাগরিক কমিটির সভাপতি মো. আবু তাহেরসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।