menu

বাঘায় ৪ ইউনিয়নে ভোট নেই ১১ বছর!

সংবাদ :
  • জেলা বার্তা পরিবেশ, রাজশাহী
  • ঢাকা , শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০১৯

এক এক করে সাংসদ ও উপজেলা নির্বাচন হয়ে গেল। কিন্তু ১১ বছর থেকে নির্বাচন হচ্ছে না রাজশাহীর বাঘা উপজেলার চারটি ইউনিয়ন পরিষদের। চারটি ইউনিয়নের মধ্যে চলছে দুটি ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দিয়ে। দীর্ঘ ১১ বছর ধরে ঝুলে আছে চারটি ইউনিয়নের নির্বাচন। নির্বাচন না হওয়ার কারণে এলাকায় উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

জানা যায়, সীমানা জটিলতার কারণে বাঘা এলাকার সেলিম রেজা, আবু বক্কর, আবদুল কুদ্দুস, মনিগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মরহুম আকবর হোসেন, সাবেক গড়গড়ি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মরহুম আবদুল গনি মন্ডল, পাকুড়িয়া ইউনিয়নের কলিগ্রামের রেজাউল হক ফিটু হাইকোর্টে নির্বাচন বিষয়ে রিট পিটিশন করে। ফলে হাইকোর্ট নির্বাচন স্থাগিত ঘোষণা করেন। বাজুবাঘা, গড়গড়ি, পাকুড়িয়া, মনিগ্রাম চারটি ইউনিয়নের নির্বাচন সর্বশেষ ২০০৩ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ চারটি ইউনিয়নের নির্বাচনের মেয়াদ ২০০৮ সালের ২৩ মার্চ শেষ হয়েছে। তবে সর্বশেষ ২০১১ সালের ২ জুলাই এ চারটি ইউনিয়নের নির্বাচন তফসিল ঘোষণা করা হলেও পরে তা স্থগিত হয়ে যায়। চারটি ইউনিয়নের সীমানা এক ইউনিয়ন থেকে অন্য ইউনিয়নে নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু এলাকাবাসী এ সীমানা নির্ধারণ চাই না। চারটি ইউনিয়নের মধ্যে মনিগ্রাম ও বাজুবাঘা ইউনিয়নে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দিয়ে পরিচালিত হচ্ছে। এছাড়া এ চারটি ইউনিয়নের কয়েকটি ওয়ার্ড সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। ফলে ওই সকল ওয়ার্ডেও কোন মেম্বর না থাকায় উন্নয়ন ব্যহত হচ্ছে।

বাঘা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল হালিম মোল্লা বলেন, নির্বাচনের মেয়াদ ১১ বছর পার হতে চলেছে। নির্বাচিত প্রতিনিধি না থাকলে উন্নয়ন ব্যহত হয়। তবে কোন ইউনিয়নে চেয়ারম্যান ও ওয়ার্ডে ভারপ্রাপ্ত প্রতিনিধি দিয়ে কাজ চালানো হচ্ছে।

বাঘা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুজিবুল আলম জানান, এই মুহূর্তে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে আর কোন আইনী জটিলতা নেই। তবে সাংসদ ও উপজেলা নির্বাচন নির্বাচন শেষ হয়ে গেল। ওই চারটি ইউনিয়নের ভোটারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে নাম যাছাই বাছাই এর কাজ চলছে। যাচাই বাছাই শেষে নির্বাচন অফিসে প্রতিবেদন দাখিল করলে আশা করছি অতিশীগ্রই নির্বাচনের দিন ধার্য করে তফসিল ঘোষণা করবে।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বলেন, বাজুবাঘা, গড়গড়ি, পাকুড়িয়া, মনিগ্রাম চারটি ইউনিয়নের নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে। আশা করছি অতিশীঘ্রই নির্বাচনের ঘোষণা হবে।