menu

পাথরঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রোগী ও স্বজনদের পেটাল আরএমও

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, পাথরঘাটা (বরগুনা)
  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০১৯

বরগুনার পাথরঘাটা হাসপাতালে এক মুমূর্ষু রোগীসহ তার ছেলেকে ব্যাপকভাবে মারধর করেছে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আনোয়ার উল্লাহ। মারধরের ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে। গত সোমবার বেলা ১২টার দিকে হাসপাতালের মধ্যে মহিলা ওয়ার্ডের সামনে এই ঘটনা ঘটে। ডাক্তারের মারধরে আহত হয় জিলানী (১৫)। সে কাকচিড়া ইউনিয়নের খাসতবক গ্রামে নেছার হাওলাদারের ছেলে। বিষয়টি পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাহমুদুল হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করলেও তার অফিসারের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোন ব্যাবস্থা নেয়নি। হাসপাতালে ভর্তি জিলানীর মা দুলু বেগম জানান, গত শুক্রবার আমরা চারজন হাসপাতালে ভর্তি হই। ডাক্তার আনোয়ার উল্লাহ আমাদের চিকিৎসা দিচ্ছে। সোমবার আমি হাসপাতালে টয়লেটে গেলে মাথাঘুরে ফ্লোরে পড়ে গিয়ে ২ ঘন্টা পর্যন্ত অজ্ঞান থাকি। নার্সদের খবর দিলেও তাঁরা খবর নেয়নি। পরে আমার ছেলে খবর পেয়ে ওয়ার্ডের সিটে নিয়ে যায়। পরে ওয়ার্ড থেকে জিলানী বের হয়ে নার্সদের সামনে এসে তাদের ডাকতে যায়। এসময় ডাক্তার আনোয়ারউল্লাহ এসে জিলানীকে এলোপাথারি মারধর করে। আমার ছেলেকে বাচাঁতে আমি (দুলু) ডাক্তারের পা জড়িয়ে ধরলে আমকেও লাথি দিয়ে মেজেতে ফেলে দেয়। ডাক্তার ও ওয়ার্ড বয়রা জানান, মারধরের পর ছেলেটিকে আমরা চিকিৎসা দেয়ার জন্য জরুরী বিভাগে এনেছিলাম। কিন্তু জিলানীকে চিকিৎসা দেয়ার আগেই আনোয়ারউল্লাহ স্যার আমদের গালমন্দ শুরুকরে তাই তাকে আমরা চিকিৎসা দিতে পারিনি। এ ব্যাপারে বরগুনা জেলা সিভিল সার্জন ডাক্তার হুমায়ুন শাহিন খান জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি। ঢাকায় আছি। বরগুনা এসে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হবে। এ ব্যাপারে ডাক্তার আনোয়ারউল্লাহ বলেন, ছেলেটি নার্সদের সঙ্গে বাগবিতন্ডা করছিল এ জন্য এর প্রতিবাদ করেছি।