menu

শেয়ারবাজারে বড় উত্থান

বেড়েছে লেনদেন, শেয়ারদর ও সূচক

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ০৮ এপ্রিল ২০২১
image

লকডাউনের খবরে গত রোববার শেয়ারবাজারে বড় ধস নামে। তবে লকডাউনের প্রথম ও দ্বিতীয় দিনের মতো তৃতীয় দিনেও উত্থানে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্সে অর্ধশত পয়েন্ট যোগ হয়েছে। এদিন অন্যান্য সূচকও বেড়েছে। একই সঙ্গে বেড়েছে টাকার পরিমাণে লেনদেন এবং বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৫৫.৯৫ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৩৩৭.৩৩ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৯.৫৫ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২২.৯২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২১৪.১৬ পয়েন্টে এবং ২০১১.১৯ পয়েন্টে। গতকাল ডিএসইতে ৫৮২ কোটি ৫২ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে যা আগের দিন থেকে ৭৩ কোটি ৫৪ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫০৮ কোটি ৪৫ লাখ টাকার।

ডিএসইতে গতকাল ৩৪৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৯৯টির বা ৫৭.৮৫ শতাংশের, শেয়ার দর কমেছে ৪৩টির বা ১২.৫০ শতাংশের এবং ১০২টির বা ২৯.৬৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৮২.১২ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৪৪৩.৮৩ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ২১৪টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩৯টির দর বেড়েছে, কমেছে ২২টির আর ৫৩টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ৩০ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই’র ব্লক মার্কেটে ২১টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির পৌনে ৮৫ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর ২ কোটি ৫০ লাখ ৪৩ হাজার ৯৮৮টি শেয়ার ৫৬ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ৮৪ কোটি ৭১ লাখ ১৭ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ৬০ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে ইসলামী ব্যাংকের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮ কোটি ৮১ লাখ ৬৮ হাজার টাকার প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৫ কোটি ১৭ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের।

এছাড়া অগ্রণী ইন্স্যুরেন্সের ৭ লাখ ৪০ হাজার টাকার, এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের ১১ লাখ ৩৬ হাজার টাকার, বিবিএস কেবলসের ৫ লাখ ১ হাজার টাকার, বিডি ফাইন্যান্সের ১ কোটি ২০ লাখ ৪০ হাজার টাকার, বিকন ফার্মার ৭ লাখ ৭৩ হাজার টাকার, বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের ১ কোটি ৪৩ লাখ ৫ হাজার টাকার, সিটি ব্যাংকের ২ কোটি ৯১ লাখ ৫০ হাজার টাকার, সিভিও পেট্রোকেমিক্যালের ২৭ লাখ ৭ হাজার টাকার, এমএল ডাইংয়ের ৫ লাখ টাকার, ওরিয়ন ফার্মার ৫ লাখ ১২ হাজার টাকার, ফনিক্স ইন্স্যুরেন্সের ১০ লাখ ৩৬ হাজার টাকার, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের ৬৩ লাখ টাকার, আরডি ফুডের ১০ লাখ ২৫ হাজার টাকার, রিংশাইনের ১০ লখ ৯৯ হাজার টাকার, রবি আজিয়াটার ২৫ লাখ ৫০ হাজার টাকার, সি পার্লের ৫ লাখ ১৯ হাজার টাকার, ইউনাইটেড পাওয়ারের ৬৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার এবং উত্তরা ব্যাংকের ২ কোটি ৭৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৪৩টির বা ১২.৫০ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। এদিন শেয়ার দর সবচেয়ে বেশি কমেছে রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্সের। গত মঙ্গলবার রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৫৩.৬০ টাকায়। গতকাল লেনদেন শেষে এর শেয়ারের ক্লোজিং দর দাঁড়ায় ৫১.৩০ টাকায়। অর্থাৎ গতকাল কোম্পানিটির শেয়ার দর ২.৩০ টাকা বা ৪.২৯ শতাংশ কমেছে। এর মাধ্যমে রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স ডিএসইর টপটেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

ডিএসইতে টপটেন লুজার তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৩.৭৫ শতাংশ, জুট স্পিনার্সের ৩.৭৩ শতাংশ, ঢাকা ডাইংয়ের ৩.৭০ শতাংশ, তুংহাই নিটিংয়ের ৩.৫৭ শতাংশ, আনলিমা ইয়ার্নের ২.৫২ শতাংশ, রহিমা ফুডের ২.২৮ শতাংশ, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ১.৯৭ শতাংশ, ইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১.৭২ শতাংশ এবং আইএফআইএল ইসলামিক মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ানের ইউনিট দর ১.৬৯ শতাংশ কমেছে।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১৯৯টির বা ৫৭.৮৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। এদিন শেয়ার দর সবচেয়ে বেশি বেড়েছে নর্দার্ন ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের। গত মঙ্গলবার নর্দার্ন ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৩৪.১০ টাকায়। গতকাল লেনদেন শেষে এর শেয়ারের ক্লোজিং দর দাঁড়ায় ৩৭.৫০ টাকায়। অর্থাৎ গতকাল কোম্পানিটির শেয়ার দর ৩.৪০ টাকা বা ৯.৯৭ শতাংশ বেড়েছে। এর মাধ্যমে নর্দার্ন ইসলামী ইন্স্যুরেন্স ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

ডিএসইতে টপটেন গেইনার তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রূপালী ইন্স্যুরেন্সের ৯.৯৬ শতাংশ, সোনারবাংলা ইন্স্যুরেন্সের ৯.৮৫ শতাংশ, ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের ৯.৮৪ শতাংশ, দেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের ৯.৮১ শতাংশ, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের ৯.২৬ শতাংশ, আরএকে সিরামিকের ৭.৮৯ শতাংশ, ব্র্যাক ব্যাংকের ৭.৭৯ শতাংশ, লিবরা ইনফিউশনের ৭.৮৪ শতাংশ এবং ফেডারেল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার দর ৭.০৩ শতাংশ বেড়েছে।