menu

লুব-রেফে দর প্রস্তাব

২৪ বিডারকে তলব বিএসইসি’র

    সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
  • ঢাকা , রবিবার, ২২ নভেম্বর ২০২০

‘বিএনও’ ব্র্যান্ডের লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেডের শেয়ার ৫০ টাকার বেশি দর প্রস্তাবকারী ২৪ বিডারকে তলব করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, গণপ্রস্তাবের (আইপিওর) বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে পুঁজিাবাজারে আসার অপেক্ষায় থাকা কোম্পানির প্রান্ত-সীমা মূল্য (কাট অফ প্রাইস) নির্ধারণের লক্ষ্যে বিডিং শুরু হয় ১২ অক্টোবর। টানা ৭২ ঘণ্টা শেষ হয় ১৫ অক্টোবর বিকেল ৫টায়। এই বিডিংয়ে (অর্থাৎ নিলামে) কোম্পানির শেয়ার পেতে ২০৮টি এলিজেবল ইনভেস্টর অর্থাৎ যোগ্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা সর্বোচ্চ প্রাইজ ৬০ এবং সর্বনিম্ন ১৩ টাকা প্রস্তাব করে। সর্বোচ্চ ৬০ টাকা একটি প্রতিষ্ঠান ২ লাখ ৫০ হাজার শেয়ার পেতে আবেদন করেন যা টাকার অঙ্কে পরিমাণ ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা। যা মোট শেয়ারের ১ দশমিক ১০৫ শতাংশ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫৮ টাকা দামে শেয়ার পেতে আবেদন করে ১টি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি ৫৮ টাকা দরে ৫ লাখ ৮ হাজার ৬০০ শেয়ার পেতে আবেদন করে। যা টাকা অঙ্কে ২ কোটি ৯৯ লাখ ৯৮ হাজার ৮০০ টাকা। তৃতীয় সর্বোচ্চ ৫৭ টাকায় দরে আবেদন করে ১টি প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটির ৬ লাখ ১৩ হাজার ৬০০ শেয়ার পেতে আবেদন করে যা টাকার অঙ্কে দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৫৯ লাখ ৮৩ হাজার ৮০০টাকা। ৫৫ টাকা দরে কোম্পানির শেয়ার পেতে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৪টি বিডার অংশ নেয়। যা টাকার অঙ্কে ১৬ কোটি ৬০ লাখ ৫৩ হাজার ৩০০ টাকা। শেয়ার সংখ্যা হচ্ছে ২৯ লাখ ৭৮ হাজার ৫০০টি। এছাড়া ৫২ টাকায় ২টি এবং ৫১ টাকায় ৪টি প্রতিষ্ঠান বিডিংয়ে অংশগ্রহণ করে। প্রতিষ্ঠান ৬টি যথাক্রমে ৩১ লাখ ৭৯ হাজার ৯০০ ও ৩৯ লাখ ৫৭ হাজার ২০০টি শেয়ার পেতে আবেদন করে। এই ২৪ এলিজেবল ইনভেস্টর লুব-রেফের শেয়ারের কাট অফ প্রাইস নির্ধারণের কারসাজির লক্ষ্যে উচ্চ দরে বিডিং করে কিনা পাশাপাশি এই দামে বিডিংয়ের যথাযথ যুক্তি দেখিয়ে তলব করা হয়েছে। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয় গত ১৮ নভেম্বর। এরপর কোম্পানিগুলোকে চিঠি দিচ্ছে। কমিশন বলছেন, যেসব উপযুক্ত বিনিয়োগকারী (এলিজেবল ইনভেস্টর) ৫০ টাকার ঊর্ধ্বে বিডিং করেছে, সেসব উপযুক্ত বিনিয়োগকারীকে কমিশনের ডিরেক্টিভ বিএসইসি/সিএমআরআরসিডি /২০০৯-১৯৩/ ২০৪, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ অনুযায়ী মিটিং করেছে কিনা সে বিষয়ে ব্যাখ্যা তলবের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উল্লেখ্য, লুব-রেফের বিডিং যোগ্য বিনিয়োগকারীদের জন্য বরাদ্দকৃত ৭৫ কোটি টাকার বিপরীতে ২০৮ বিডার মোট ১৭৪ কোটি ১৪ লাখ ৪১ হাজার টাকার দর প্রস্তাব করা হয়েছে যা প্রয়োজনের চেয়ে ২৭৩ শতাংশ বেশি। লুব-রেফ বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে আইপিও মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ১৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। এই অর্থ ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিও খাতে ব্যবহার করবে।