menu

সিলভিয়া প্লাথের কবিতা

অনুবাদ : অশোক কর

  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর ২০১৯

ডেথ এন্ড কোঃ

দু’জন, নিঃসন্দেহে ওরা দু’জনই।

এখন খুবই স্বাভাবিক বলেই মনে হয়Ñ

একজন, যে চোখ তুলে তাকায়নি কখনো, যার চোখগুলো ঢাকা

আর বিস্ফারিত, ক্লাকি-এর মতো,

তার লোক দেখানো

জন্মদাগ, সেগুলোই তার ট্রেডমার্ক

ছেঁকা ফোস্কাফাটা জরুল

আব্রুহীন

শকুন গ্রীবার তামাটে চামড়ার দলা।

আমি সেই কুৎসিত মাংসপি-। ওর চঞ্চু দুটো

আড়াআড়ি শব্দ করে নড়ে : এখনো ওর হয়ে উঠতে পারিনি আমি।

ও বলে, কী যাচ্ছেতাই ফটোগ্রাফ আমি তুলি।

আমাকে বলে ও, কী মিষ্টি

দেখতে লাগে বাচ্চাদের হাসপাতালের ঐ

বরফ-বাক্সে, একেবারে সাদাসিধে

জামার গলার ঝালর,

তারপর ভাঁজে ভাঁজ কুচি দিয়ে বানানো

আয়োনিয়ান ডেথ-গাউন,

সবশেষে ছোট্ট দু’টি পা।

ও হাসেও না, ধুমপানও করে না।

অন্যজন কিন্তু এ সবকিছুই করে,

তার লম্বা চুল আর আপাতঃদৃষ্টসঙ্গত

জোড়াগোঁফ

আবেগমৈথুনে ব্যস্ত,

সে প্রেমাস্পদ হতে চায়।

আমি এসবে মাতি না।

তুষারকণা ফুল হয়ে ফোটে,

শিশিরবিন্দু তারা হয়ে জ্বলে,

মৃত্যুর ঘণ্টাধ্বনি বাজে,

মৃত্যুর ঘণ্টাধ্বনি বাজে।

কারো সব হয়ে গেছে সারা।

কিনারা

মহিলা পরিপূর্ণ হলেন।

তাঁর মৃত

দেহ অভীষ্ট পূরণের সকল সৌরভ মেখে সুরভিত,

কী এক গ্রিক অপরিহার্যতার বিভ্রম

শাস্ত্রপাঠের পুঁথির মোড়োনো পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠায় যাচ্ছে ছড়িয়ে,

তাঁর নগ্ন

পদযুগল এখনি হয়তো বলে উঠবে:

তোমরা বড় বেশি চলে এসেছো, পরিসমাপ্তি এখানেই।

প্রতিটা মৃতশিশু একেকটা শুভ্র সরীসৃপ, কু-লী পাকানো,

প্রত্যেকে তারা ছোট্ট এক

দুধপাত্রের পাশে শুয়ে, এখন সেগুলো শূন্য পরিত্যক্ত।

সুন্দর গুছিয়ে নিয়ে তিনি

সারাদেহে ওদেরকে সাজিয়েছি অস্ফুটিত গোলাপ

পাঁপড়ির আদলে, যখন ফুলবাগানে

স্নিগ্ধ রজনীস্ফুট ফুলদের

আড়ষ্ট, গভীর কণ্ঠনালী চিরে রক্তগন্ধ ছড়ায়।

চাঁদের কিন্তু তাতে মনোকষ্ট পাবার মতো কিছু নেই

হাড়ের অবগুণ্ঠনে চন্দ্রালোক ছড়িয়ে

কৃষ্ণপক্ষে রাতে নিজেকে খটমট টেনে-হিচরে চলে

এমন কাজ সচরাচর করতে অভ্যস্ত চাঁদ

ঔদার্য

ঔদার্য ভেসে বেড়াচ্ছেন আমার ঘরজুড়ে।

দেবী ঔদার্য, কী মহিমান্বিতা তিনি!

তাঁর নীল লাল আঙ্গুরীয় রতেœর ধূম্রজাল

উড়ছে জানালায়, আয়নাগুলোর

প্রতিবিম্ব জুড়ে শুধু তাঁরই স্মিতহাস্যমুখ।

শিশুর কান্নার চেয়ে গূঢ় বাস্তবিক কী হতে পারে?

শশকের কান্না বস্তুত বড্ড আরণ্যক

তাতে আত্মার ক্রন্দন নেই।

শর্করা আরোগ্য দিতে পারে সবকিছুর, তাই ঔদার্যদেবী বলেন,

শর্করা অতীব এক জরুরি পানীয়,

শর্করা দানারা কিছুটা ঔষধি প্রলেপ,

ও ঔদার্য, ঔদার্য

কি মাধুর্যে তুলে নিচ্ছ স্পর্শযোগ্য সবকিছু,

আমার জাপানি সিল্কে, উন্মত্ত প্রজাপতিদের

গেঁথে রাখা হবে যে কোন মুহূর্তে, বেদনা-অসাড় ঔষধ সহযোগে।

  • সিলভিয়া প্লাথ

    মৃত্যু, নৈঃসঙ্গ্য ও আত্মবিনাশের কবি

    কামরুল ইসলাম

    newsimage

    সিলভিয়া প্লাথ ছিলেন আমেরিকান কনফেশনাল কবিদের অন্যতম। সাহিত্যে কনফেশন বলতে বোঝায় সেই আত্মজীবনীমূলক রচনা (প্রকৃত

  • জীবন প্রলয়ী সিলভিয়া প্লাথ

    মিলটন রহমান

    newsimage

    আমার অন্তর্গত অনুসন্ধান এবং পর্যবেক্ষণিক সিলভিয়া প্লাথের বয়স বাইশ বছরের কম নয়। প্রথমদিকে কাব্যের চেয়েও বেশি অনুরক্ত এবং

  • কমলকুমার বিষয়ে ভাব প্রকাশ

    মামুন হুসাইন

    newsimage

    কৃতি সমালোচকের বাক্য নকল করে বলি- লেখা তার ঈশ্বর সাধনা; নাকি বলবো পুরাণ, ব্রতকথা, ধ্রুপদী সঙ্গীত, মন্দির ভাস্কর্যের

  • ফিরে যাব রাজপথে

    সৌর শাইন

    newsimage

    মৃত্যুর দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে। স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছি জীবননাশী দূতকে, যদিও চোখ দুটো বাঁধা। মৃত্যু আমার নিচের ঠোঁটটা আলতো ছুঁয়ে গেল।

  • উত্তাপ

    ফরিদা ইয়াসমিন সুমি

    newsimage

    ঘুম ভেঙে যায় বিথীর। দরদর করে ঘামছে। মনে হচ্ছে সারারাত ধরে স্বপ্ন দেখছিল। এরকমটা হয় মাঝেমাঝে। স্বপ্নের কথা মনে করে ভীষণ লজ্জা

  • সাময়িকী কবিতা

    নোরা টোরভাল্ডের প্রাণ বাঁচিয়েছে। মিস লিন্ডে মৃত্যুশয্যাশায়ী মার পাশে ছিল, তার