menu

শওকত ওসমানের অগ্রন্থিত কবিতা

মুখোমুখি

  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৬ মে ২০১৯
image

সম্প্রতি বাংলা সাহিত্যের এক কর্মী জনাব ভূঁইয়া ইকবাল, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জদুঘরের আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ কোষ গ্রন্থাগার থেকে উদ্ধার করেছেন শওকত ওসমানের লেখা কিছু কবিতা ও ছোটগল্প। যেমন: “সাপ্তাহিক কোহিনুর” পত্রিকায় প্রায় ৬৬ বছর আগে ১৯৫৩ সালে ছাপা হয় ছোটগল্প “অন্যতম পরিচ্ছেদ”। “মাসিক মোহাম্মদী’’ পত্রিকায় প্রায় ৮০ বছর আগে ছাপা হয়েছে শওকত ওসমানের লেখা কবিতা “মুখোমুখি”। কবিতাটি কোনো গ্রন্থে মুদ্রিত হয়নি। অগ্রন্থিত এই কবিতাটি ‘সংবাদ সাময়িকী’তে মুদ্রণের জন্য প্রেরণ করা হলো।

মুখোমুখি

সারা দুপুর তুমি আমাকে ফেলে গিয়েছিলে

এই ঘরে।

তুমি আমাকে ফেলে গেলে একা

এই ঘরে।

সখিরা ডেকেছিল ইশারায়,

তোমাকে ডেকেছিল বাইরের দিন,

পুকুরের পাড়, কচি বাবলার কাঁটা খেলা,

পুতুলের বিয়ে হিজল-তলায় সারা বেলা,

বাঁশবনের মর্মর আর ছায়া বিপিনÑ

তোমাকে ডেকেছিল অনেক দূরের আকাশ।

সবার ডাক তোমার কানে গেল

শুধু আমার ডাক তুমি শুনলে না।

যে ডাক গেল পেছন থেকে

মোচড় খেয়ে

এঁকে বেঁকে

তোমার হৃদয়ে তা তুললে না।

সবার ডাক তোমার কানে গেল

শুধু আমার ডাক তুমি শুনলে না।

আমার হৃদয়ের চুপি-চুপি-যাত্তা ডাক

সাঁঝ বেলাকার বাজানো শাঁখ-

বহুদূরের দেবতাকে যে ডাকে;

আমার বুকের কাছের দেবতাকে ডাকলুম

সেই সুর দিয়ে;

আমার দেবতা সে ডাকে ভুললে না।

(সবার ডাক ... শুনলে না)

ওগো পলাতকা, ওগো পলাতকা,

তুমি বন হরিণীর মত নিমেষে পলকে

আড়াল হলে, দেখোনিক

কি ছিল কিসের ডাক আমার চোখে

ওগো ঝড়ের রাতের তারকা, ওগো তারকা।

যেতে যেতে ফিরে এসে অধীর

আলো ছড়িয়ে চেনা চাউনীর

দুয়ার বারেক খুললে না।

(সবার ডাক ... শুনলে না)

* * *

রোদ পড়ে গেছে, আকাশে আগুন আর ফেনা,

এমন সোনার বিকেলে

সবাইকে ভুলে তুমি ফিরে এলে।

কেন আমাকে তুমি ভুললে না?

তারই মীড় ফিরে অকারণে,

তবু কেন বাজতে থাকে মনে:

তোমার যাবার বেলা

যে ডাক গেল পেছন থেকে

মোচড় খেয়ে এঁকে-বেঁকে

তোমার হৃদয়ে তা তুললে না।

সবার ডাক তোমার কানে গেল

শুধু আমার ডাক তুমি শুনলে না।

সংগ্রহ ও ভূমিকা : জাঁ-নেসার ওসমান