menu

নজরুলের ‘বিদ্রোহী’

মঈনউদ্দিন মুনশী

  • ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯
image

‘বিদ্রোহী’ শুধু নিছক ভাঙার জন্যই ভাঙার গান নয়, এর পিছনে আছে নবসৃষ্টির তাগিদ। ‘বিদ্রোহী’ বাংলা কাব্য সাহিত্যে একটি নতুন এবং অবিস্মরণীয় সৃষ্টি। এ সৃষ্টি নজরুলকে দিয়েছে বাংলার অন্যতম মৌলিক কাব্যস্রষ্টার আসন

‘বিদ্রোহী’ নজরুল ইসলামের অন্যতম শ্রেষ্ঠ কবিতা। ‘বিদ্রোহী’ যখন প্রথম প্রকাশিত হয়, তখন বাংলা সাহিত্যিক-মহলে এক পরম বিস্ময়ের সৃষ্টি হয়। কারণ ‘বিদ্রোহী’ জাতীয় কবিতা তখন বাংলা সাহিত্যে মোটেই ছিল না। বাংলার নরম মাটি ও প্রকৃতিতে এ জাতীয় কাব্যসৃষ্টি যে সম্ভব সে ধারণাও তখন কারও ছিল না।

‘বিদ্রোহী’র আবির্ভাবে বাংলার সাহিত্যিক মহল বিস্মিত হয়েছিলেন। এ বিস্ময় শুধু প্রশংসামূলক ছিল না, কোন কোন মহল এর নিন্দাও করেছিলেন, নিন্দাবাদীরা বললেন, ‘এ বাংলায় চলবে না, বৈষ্ণবের প্রেমভক্তির দেশ বাংলায় এ অচল’। কিন্তু তারা ভুলে গিয়েছিলেন যে, বাংলা শুধু ভক্তিবাদী বৈষ্ণবের দেশই নয়, বাংলা কর্ম ও শক্তিবাদী মানুষেরও দেশ। প্রেম-ভক্তির পাশাপাশি পদ্মা-মেঘনার ভয়াবহ তান্ডবও এর প্রকৃতিতে মিশে আছে। তাই প্রেমবাদী মরমী রবীন্দ্রনাথ যেমন বাংলার স্বাভাবিক কবি, ‘বিদ্রোহী’র কবি শক্তিবাদী নজরুলও তেমনি বাংলার স্বাভাব ধর্মের সঙ্গে সুসমঞ্জস।

নজরুল ইসলাম প্রতিভাশালী কবি হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিলেন ‘বিদ্রোহী’ রচনার আগেই তার ‘আনোয়ার’, ‘শাতিল আরব’, ‘রণভেরী’, ‘কোরবানী’, ‘মোহররম’, কামাল পাশা’ ইত্যাদি কবিতা তাকে বাংলার কাব্য রসিকদের কাছে আগেই একজন শক্তিশালী কবি হিসেবে প্রতিষ্ঠা দিয়েছিল। সেই সময়ের একজন মেধাবী কবি করুণানিধন বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন যে, ‘নজরুল কবি কুমুদরঞ্জন মল্লিকের চাইতে কোনো অংশেই খাটো নন’- এমনকি ছন্দের দিক দিয়ে নজরুলকে সত্যেন্দ্রনাথের সঙ্গে তুলনীয় বলেও তিনি মন্তব্য করেছিলেন। কবি মোহিতলাল মজুমদার নজরুলের ‘খেয়াপারের তরণী’ পড়ে উচ্ছ্বসিত ভাষায় বলেছিলেন যে, প্রাণশক্তির অভাব দেখে যে ‘মিথ্যাময়ী ছন্দ সরস্বতীর’ ওপর তার ঘৃণা জন্মে গিয়েছিল, নজরুলের প্রাণ-প্রাচুর্যে ভরপুর অপূর্ব ছন্দ সুষমাখচিত এ কবিতা দেখে তার বিশ্বাস আবার ফিরে এসেছে।

তৎকালীন কাব্য-রসিক সমাজ এটা অনুধাবন করতে পেরেছিলেন যে, নজরুল বাংলার কাব্যক্ষেত্রে একজন যুগপ্রবর্তক। এ প্রসঙ্গে বুদ্ধদেব বসু বলেছিলেন- ‘এ কথা সত্য যে, রবীন্দ্রনাথের পরে বাংলা ভাষায় তিনিই প্রথম মৌলিক কবি।... সত্যেন্দ্রনাথকে মনে হয় রবীন্দ্রনাথের সংলগ্ন কিংবা অন্তর্গত, আর নজরুল ইসলাম রবীন্দ্রনাথের পারে অন্য একজন কবিÑ ক্ষুদ্রতর নিশ্চয়ই, কিন্তু নতুন। তিনি দেখিয়ে দিলেন যে রবীন্দ্রনাথের পথ ছাড়াও অন্য পথ বাংলা কবিতায় সম্ভব।’

বাংলা সাহিত্যে মৌলিক বা যুগপ্রবর্তক কবি হচ্ছেন রবীন্দ্রনাথ, মাইকেল এবং নজরুল। কাব্যশক্তি এবং অবদানের দিক দিয়ে এদের মধ্যে বৃহত্তর ক্ষুদ্রতর আছেন নিশ্চয়ই। রবীন্দ্রনাথ যে সবার উপরে সেটা অনস্বীকার্য। তবে এদের কেউই একে অপরের পথ অনুসরণ করে চলেননি। নিজেরাই নিজেদের পথ তৈরি করে নিয়েছেন। এদিক দিয়ে তিনজনই স্বতন্ত্র, তিনজনই মৌলিক কাব্যপ্রতিভার ছাপ রেখে গেছেন এবং অন্য কারও সঙ্গে এদের তুলনা চলে না।

নজরুলের ‘বিদ্রোহী’ মৌলিক প্রতিভার সৃষ্টিবৈচিত্র্যের বর্ণ-সুষমা নিয়ে আবির্ভূত হয়েছিল এবং তা বাংলার কাব্যরসিকজনের মনে বিস্ময়ের চমক লাগাতে পেরেছিল। ‘বিদ্রোহী’ অনবদ্য, কাব্য-রচনা হয়ত নয়, সমগ্রতার সৌন্দর্র্য সৃষ্টি হিসেবে তাতে ত্রুটি থাকতে পারে; কিন্তু তাতে করে কাব্য-সুষমার এমন হানি হয়নি যাতে পাঠক আনন্দ লাভ থেকে বঞ্চিত হয়। ‘বিদ্রোহী’র কৃত্রিমতাহীন স্বাভাবিক সৌন্দর্য সৃষ্টি অধিকাংশ পাঠককে অনাবিল আনন্দ দিয়েছে। এ কবিতার অসাধারণ জনপ্রিয়তা তারই প্রমাণ।

কোন কোন কাব্য-সমালোচক ‘বিদ্রোহী’র নতুনত্ব অস্বীকার করার চেষ্টা করেছেন। রবীন্দ্রনাথের ‘নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ’, ‘আমরা চলি সমুখ পানে’, ‘কে আমাদের বাঁধবে’, ‘ওরে নবীন, ওরে আমার কাঁচা’- এ সবের উদ্ধৃতি দিয়ে তারা বলেছেন যে, ‘বিদ্রোহী’ নতুন কিছু নয়, রনীন্দ্রনাথ বহু আগেই এসব বলে গিয়েছেন। কিন্তু রবীন্দ্রনাথের এসব কবিতা আর নজরুলের ‘বিদ্রোহী’ কি এক জিনিস? রবীন্দ্রনাথের উল্লিখিত কবিতাগুলোতে আগে চলার তাগিদ আছে বটে; কিন্তু তাতে বিদ্রোহের অগ্নিবাণী নেই। বাধাবিঘ্ন অতিক্রম করে এগিয়ে চলার আহ্বান, আর নতুন সৃষ্টির জন্য ভাঙার গান এক নয়, তাই নজরুলের ‘বিদ্রোহী’র নতুনত্বে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই।

‘বিদ্রোহী’ শুধু নিছক ভাঙার জন্যই ভাঙার গান নয়, এর পিছনে আছে নবসৃষ্টির তাগিদ। ‘বিদ্রোহী’ বাংলা কাব্য সাহিত্যে একটি নতুন এবং অবিস্মরণীয় সৃষ্টি। এ সৃষ্টি নজরুলকে দিয়েছে বাংলার অন্যতম মৌলিক কাব্যস্রষ্টার আসন।

  • বিশ্বসাহিত্যের সাম্প্রতিক প্রবণতা

    ইকোক্রিটিসিজম ও ইকোফিকশন

    মাহফুজ আল-হোসেন

    newsimage

    ইকোলজি বিষয়টি মানুষের পরিবেশ সচেতনতার মধ্য দিয়ে একটি শাস্ত্রে রূপান্তরিত হয়েছে ঊনবিংশ

  • হেনরি জেমস

    দুঃসাধ্যের স্থপতি

    কামরুল ইসলাম

    newsimage

    আমেরিকায় জন্মগ্রহণকারী ব্রিটিশ ঔপন্যাসিক হেনরি জেমস (১৮৪৩-১৯১৬) তাঁর বেশ কিছু লেখার মধ্য

  • ওসামা অ্যালোমারের অণুগল্প

    অনুবাদ: ফজল হাসান

    newsimage

    লাথি দু’জন প্রশ্নকর্তা কয়েদীকে কক্ষের এক কোণে জবুথবু অবস্থায় ফেলে যায়। কয়েদীর ক্ষত

  • স্লোভেনিয়ান কবি গ্লোরিয়ানা ভিবারের সাক্ষাৎকার

    ‘বাংলাদেশ আমাকে গোলাপের কথা মনে করিয়ে দেয়’

    newsimage

    সম্প্রতি একুশে বইমেলায় মার্কিন প্রবাসী বাংলাদেশী কবি ও অনুবাদক রাজিয়া সুলতানার সঙ্গে

  • আমার আছে বই ৮

    মালেকা পারভীন

    newsimage

    গতবার ইরানি কুর্দিশ লেখক বেহরুজ বুচানি সম্পর্কে লিখেছিলাম। অনেকেই বুচানি বা তাঁর

  • অসম্পূর্ণ গল্প (পর্ব ৪)

    মুজতাবা শফিক

    newsimage

    (পূর্ব প্রকাশের পর) সপ্তম অধ্যয় মুমিনের ক্লাস ফাইভের বৃত্তি পরীক্ষার সময়, আব্দুল হক সাহেব

  • নির্মম যম

    অনুবাদ : শামসুজ্জামান হীরা

    newsimage

    আমি এক দন্ডপ্রাপ্ত ভবঘুরে আত্মা। এক অস্থির আত্মা। এখানে সেখানে অনবরত ঘুরে

  • কামরুল হাসানের কবিতা

    newsimage

    উনিশ বছর একটি পাখির আর কতটুকু বয়স? উনিশ বছর অনাঘ্রাত রোম নিয়ে বসন্তের বাগানে

  • পথচারী

    রে ব্র্যাডবেরি

    newsimage

    নভেম্বরের রাত আটটায় কুয়াশা ঢাকা শহরের নীরবতায় ডুব দেওয়া, কংক্রিটে মোড়া ফুটপাথে

  • চয়ন শায়েরীর কবিতা

    newsimage

    স্কিজোফ্রেনিয়া : দুই একটা হাত হ্যাঁচকা টানে মগজ বের করে আনে গাছ গজিয়ে ওঠে

  • এ সংখ্যার কবিতা

    হৃদযন্ত্র নভেরা হোসেন তোমার ঘরের পাশেই আরেকটি ঘর তার পাশে আরেকটি তার